পরিকাঠামো বিষয়ক প্রকল্প গুলির রূপায়ণ ও এই ক্ষেত্রে বাধা নিষেধ দূর করা রাশিয়ার মুখ্য কাজ. এই টি সম্ভাব্য হলে দেশের অর্থনীতিতে আরও বেশী বিনিয়োগ আসবে ও বহু গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক সমস্যা দূর করা সম্ভব হবে. এই বিষয়টি সারা রাশিয়া সম্মেলনে বহু অর্থনীতিবিদ, সরকারি কর্মচারী, ব্যবসায়ী ও আইন প্রণেতা মস্কোতে আলোচনা করছেন.

এই আলোচনার সময়ে শক্তিশালী শিল্প, পরিবহন ও তথ্য প্রযুক্তি সম্প্রচারের পরিকাঠামো তৈরীর কথা বলা হয়েছে. সঙ্কটের কারণে বহু প্রকল্পেই বাজেট বরাদ্দ কমাতে হয়েছে.

রেডিও রাশিয়ার চেয়ারম্যান আন্দ্রেই বিস্ত্রিতস্কি তাঁর বক্তৃতাতে বলেছেন যে, সঙ্কটে টেলি ও তথ্য সম্প্রচারের ক্ষতি কম হয়েছে, এখানে প্রাথমিক কাজ হবে ইলেকট্রনিক প্রশাসনের নির্মাণ, কাগজের ব্যবহার থেকে বেরোতে পারা. তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে রাশিয়ার রেডিও কোম্পানী গুলি বর্তমানে নতুন স্তরে উঠতে পেরেছে, তাদের মধ্যে রেডিও রাশিয়া রয়েছে.

এর ফলে শ্রোতা ও দর্শকের সংখ্যা বেড়েছে সারা বিশ্বে. অন্য ব্যাপার হল, এত রকমের তথ্য পাওয়ার সুবিধা হয়ে যাওয়াতে আমরা আমাদের শ্রোতা ও দর্শকদের বিভিন্ন ভাগে দেখতে পাচ্ছি. কিন্তু নতুন প্রযুক্তি সব মিলিয়ে বিস্ময়কর, সাধারন উদাহরণ – মোবাইল ফোন ও মোবাইল ইন্টারনেট. দুটোই চমত্কার সফল প্রযুক্তি.

রেডিও রাশিয়ার প্রধানের মতে সরকারি ও বেসরকারি যৌথ মালিকানা তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে, বিশেষত রেডিও সম্প্রচারের ক্ষেত্রে সেই সব দিককে স্পর্শ করতে পারে, যেখানে যোগাযোগ পরিষেবা, সঙ্কেত পৌঁছনো, প্রযুক্তির উন্নতি ইত্যাদি ক্ষেত্রে বিনিয়োগ সম্ভব, যা প্রায়শই ব্যবসায়িক মণ্ডলে আওতার মধ্যে পড়ে না. এখানে সহযোগিতার জন্য বিশাল ক্ষেত্র উন্মুক্ত রয়েছে.