ইভগেনি ভিক্তরোভিচ প্লুশেঙ্কো – বিখ্যাত রাশিয়ান ফিগার স্কেটিং খেলোয়াড়, পুরুষদের একক ফিগার স্কেটিং এ ২০০৬ সালের অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন, তিন বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এবং ছয় বার ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন. তিনি ৩রা নভেম্বর ১৯৮২ সালে খাবারভস্ক অঞ্চলের সোলনিচনি শহরে জন্মেছিলেন. চার বছর বয়সে ফিগার স্কেটিং করতে শুরু করেন, যে খেলায় তাঁকে অনুপ্রাণিত করেছিলেন তাঁর মা. ১৯৯১ সালে সেন্ট পিটার্সবার্গ পাকাপাকি ভাবে চলে আসেন এবং সেখানেই তাঁর শিক্ষা চলতে থাকে.    ১৯৯৪ সাল – শিশু ও যুবক খেলা শেখার স্কুলের ফিগার স্কেটিং বিভাগের ছাত্র.    ১৯৯৮ সাল – পেত্রোগ্রাদ অঞ্চলের মাধ্যমিক স্কুল পাশ করেন.    ২০০০ সাল থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে সেন্ট পিটার্সবার্গের পি. এফ. লেসগাফত নামাঙ্কিত রাষ্ট্রীয় শরীর চর্চা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করেন.    ২০০৪ সাল – তিনি সেন্ট পিটার্সবার্গের ইঞ্জিনিয়ারিং ও অর্থনীতি রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বহির্বিভাগে পর্যটন ও হোটেল ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে পড়াশোনা শুরু করেছেন.    ইভগেনি রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর অফিসার (সামরিক বাহিনীর খেলাধূলার ক্লাবের সদস্য). ২০০৭ সালের মার্চ মাসে সেন্ট পিটার্সবার্গের বিধান সভায় ন্যায়ের রাশিয়া দলের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচিত সদস্য.    রাশিয়ার টেলিভিশনের প্রথম চ্যানেলের তারকারা বরফের উপর অনুষ্ঠানের তিনি ঘোষকের ভূমিকায় ছিলেন. ২০০৮ সালে রাশিয়ার জনপ্রিয় শিল্পী দিমা বিলানের সঙ্গে (বেহালা বাদক এডউইন মার্টিনের সঙ্গেও) ইউরোভিশন সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন.    ফলাফলঃ ইভগেনি প্লুশেঙ্কো এই নিয়ে ৭৯ বার আইস স্কেটিং প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়েছেন.    অলিম্পিক বিজয় – ২০০২ সালে দ্বিতীয় স্থান, ২০০৬ সালে প্রথম স্থান

    তালিন শহরে আয়োজিত বিগত ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপে যোগ দিয়ে তিনি নিজের সরকারি বিশ্ব রেকর্ড নিজেই ০, ৬৪ পয়েন্ট বেশী করে সব মিলিয়ে ৯১, ৩০ পয়েন্ট পেয়ে নতুন করে গড়েছেন. মস্কো শহরে ২৩.১০.২০০৯ তারিখে গ্র্যান্ড প্রিক্স পর্যায়ে তাঁর ব্যক্তিগত ফলের চেয়ে এটি ৯,০৫ পয়েন্ট বেশী. প্লুশেঙ্কো বর্তমানে বিশ্বের এক নম্বরে রয়েছেন.