রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন ২০১০ সালে সরকারের প্রধান প্রধান কর্তব্য নিরূপণ করেছেন. এ বছরে সরকারের সভাপতিমণ্ডলীর প্রথম বৈঠকে তিনি বলেন, সর্বপ্রথমে, সঠিক ও নির্বিঘ্নভাবে পেনশন বৃদ্ধির ব্যবস্থা করা প্রয়োজন. তিনি দাবি করেন জীবনধারণের সর্বনিম্ন মান পর্যন্ত আয় হয় না এমন সমস্ত প্রবীণ লোকেদের জন্য আঞ্চলিক ভাতা সুনিশ্চিত করার. পুতিন মনে করিয়ে দেন যে, পয়লা জানুয়ারী থেকে মাতৃ পুঁজি (দ্বিতীয় সন্তানের জন্মের সময় দেশের বাজেট থেকে বরাদ্দ করা অর্থ) খরচ করা যেতে পারবে বাসাবস্থা উন্নতির জন্য, গৃহ ঋণ শোধ করার জন্য, ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ার জন্য এবং পেনশনের সঞ্চয় অংশ গঠনের জন্য. ২০১০ সালে এই "মাতৃ পুঁজির" পরিমাণ হবে ৩ লক্ষ ৪৩ হাজার রুবল (প্রায় ১২ হাজার ডলার). আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য- প্রবীন যোদ্ধা ও সামরিক কর্মীদের জন্য বাসগৃহ সুনিশ্চিত করা এবং সুলভ বাসগৃহ নির্মাণ. পুতিন সরকারের সদস্যদের দায়িত্ব দিয়েছেন ব্যবসায়ে উত্সাহ দান ও কর্মস্থল সৃষ্টির জন্য নির্দেশিত ব্যবস্থা গ্রহণ করার.