রাশিয়া ও বেলোরাশিয়া খনিজ তেল সরবরাহের বিষয়ে কোন সংযুক্ত সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারে নি, তবে দুই পক্ষই বেলোরাশিয়াতে খনিজ তেল সরবরাহের বিষয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত. শনিবার সন্ধ্যায় এই বিষয়ে বেলোরাশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর তথ্য সম্প্রচার সহায়ক আলেকজান্ডার তিমোশেঙ্কো সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন. তাঁর কথা মতো বেলোরাশিয়ার প্রতিনিধি দল মস্কো থেকে মিনস্ক চলে গিয়েছে আলোচনার জন্য. এর আগে শনিবার একজন রাশিয়ার মুখ্য প্রাকৃতিক তেল ও গ্যাস সংক্রান্ত বিষয়ে বিশেষজ্ঞ মন্তব্য করেছিলেন যে, বেলোরাশিয়া রাশিয়া থেকে পাঠানো তেলের বিষয়ে আলোচনা দীর্ঘায়িত করলে, রাশিয়া প্রস্তাবিত বিশেষ মূল্য প্রত্যাহার করে নিতে পারে. ২০১০ সালের শুরুর আগে মস্কো এবং মিনস্ক খনিজ তেল রপ্তানীর বিষয়ে কোন সহমতে পৌঁছতে পারে নি. যদিও ইউরোপে বেলোরাশিয়া থেকে তেল সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে. একই সঙ্গে বেলোরাশিয়ার খনিজ তেল শোধনের কারখানা গুলিও তেল পাচ্ছে. রাশিয়া বেলোরাশিয়াকে বছরে ৬৩ লক্ষ টন খনিজ তেল বিনা শুল্কে সরবরাহ করতে রাজী হয়েছে, দেশের আভ্যন্তরীন প্রয়োজনে কাজে লাগানোর জন্য. এই শুল্ক অপসরণে বেলোরাশিয়া বছরে ১৮০ কোটি ডলার কম খরচ করবে. কিন্তু বেলোরাশিয়া দাবী করেছে পাঁচ গুণ বেশী.