ভারত পাকিস্তানের সাথে সংলাপ পুনরারম্ভ করবে না, যতদিন না ইস্লামাবাদ মুম্বাই আক্রমণের সংগঠকদের শাস্তি দিচ্ছে, যে আক্রমণের ফলে গত বছরের নভেম্বরে ১৬৬ জন মারা গেছে. এ সম্পর্কে মঙ্গলবার নিউ-দিল্লিতে বলেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজ্যমন্ত্রী শ্রী শশী ঠাকুর. তিনি পাকিস্তানী কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন সন্ত্রাসের তদন্ত সক্রিয় করে তোলার এবং তার সংগঠকদের শাস্তি দেওয়ার. সেই সঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন যে, এখনও পর্যন্ত পাকিস্তান যথেষ্ট কিছু করছে না নিজের ভূভাগে সন্ত্রাসবাদী পরিকাঠামো ধ্বংস করার জন্য, যেখান থেকে ভারতের জন্য বিপদ আসছে. ভারতে মুম্বাইয়ের মতো বড় শহরে আক্রমণের পরে, যার সংগঠক বলে বিবেচনা করা হচ্ছে পাকিস্তানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা লশ্কর-এ-তাইবা দলের চরমপন্থীদের, ইস্লামাবাদ ও নিউ-দিল্লির সম্পর্ক কানাগলিতে গিয়ে পড়ে. এ সম্পর্ক আরও খারাপ হয়ে ওঠে লশ্কর-এ-তাইবা দলের নেতা হাফিজ মোহাম্মদ সৈয়দকে জেলখানা থেকে মুক্ত করে গৃহবন্দী করে রাখার পরে. শশী ঠাকুর জোর দিয়ে বলেন, আমরা ইস্লামাবাদের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জন্য প্রস্তুত, যদি সে সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট ব্যবস্থা গ্রহণ করে.