ব্যবহারকারী দের রক্ষার জন্য রাশিয়াতে মাইক্রোসফট্ কোম্পানী নতুন সারা দুনিয়ার জন্য তৈরী কম্পিউটার পাইরেট দের জিনিস যাতে বন্ধ করা যায় সেই রকম প্রোগ্রাম প্রকাশ করেছে. এই পদ্ধতিতে প্রত্যেকেই জানতে পারবে যে, তার কম্পিউটারে যে সিস্টেম রয়েছে, তার লাইসেন্স আছে না নেই.

    মাইক্রোসফট্ কোম্পানীর মূল্যায়নে কয়েক মাসের মধ্যেই এই প্রযুক্তি কয়েক লক্ষ রাশিয়ার লোক ব্যবহার করতে পারবেন, যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন, তারা. এই প্রযুক্তি কি করে পাইরেট দের মোকাবিলাতে সাহায্য করবে সেই প্রসঙ্গে F5 মিডিয়া গ্রুপের ইন্টারনেট সার্ফিং প্রোজেক্ট "বাঁচো" এর প্রধান আন্দ্রেই নাউমচিক বলেছেনঃ

    "নতুন প্রোগ্রাম টি হয়ত বা পাইরেট প্রোগ্রামের পরিমান বাজারে কমিয়ে দেবে, মাইক্রোসফট্ কোম্পানী প্রতি বছর রাশিয়াতেই শুধু কম করে হলেও এক বিলিয়ন ডলার ক্ষতি সহ্য করে, কারণ প্রায় ষাট শতাংশ রাশিয়ার লোক নিজের কম্পিউটারে পাইরেট দের কাছ থেকে কেনা প্রোগ্রাম বসিয়ে থাকে, তাছাড়া এমন লোকও আছে যারা নিজেরা না জেনে এই পাইরেট প্রোগ্রামের শিকার হয়েছে, কারণ তাকে প্রোগ্রামটি বিক্রী করেছে কোন অসাধু দোকান দার".

    রাশিয়াতে Microsoft Windows প্রোগ্রাম প্রায় সব জায়গাতেই পাইরেট কপি হিসাবে পাওয়া যায়, কয়েক বছর আগে পের্ম অঞ্চলের শিক্ষক আলেকজান্ডার পানোসভ বলে একজনের সাথে মাইক্রোসফট্ কোম্পানী এই বিষয়ে বিচার চাইতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল.  তিনি নাকি স্কুলের বাচ্চাদের কম্পিউটারে লাইসেন্স হীণ প্রোগ্রাম লাগিয়ে ছিলেন, যদিও পানোসভ প্রমাণ করে দিয়েছিলেন যে, তার স্কুলের কম্পিউটারে কেনার সময়েই যে প্রোগ্রাম বসানো অবস্থায় দেওয়া হয়েছিল, সে টি পাইরেট কপি, তাই আদালত তাঁকে রেহাই দিয়েছিল. তবে বর্তমানের প্রোগ্রামের পর কেউ আর বলতে পারবে না যে, সে জানত না যে, তার কম্পিউটারে পাইরেট প্রোগ্রাম লাগানো আছে.

    সাধারণতঃ ব্যবহার কারীরা পাইরেট প্রোগ্রাম টোরেন্ট ট্র্যাকার ব্যবহার করে ইন্টারনেটে পাইরেট প্রোগ্রাম ডাউনলোড করে থাকে, অথবা যারা বাড়ীর দেওয়ালে বাস স্টপে কম্পিউটার সারানোর বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে, সেই সব কম্পিউটারের মিস্ত্রীরা এই সব প্রোগ্রাম কম্পিউটারের জন্য স্বল্প দামে বিক্রী করে থাকে. এমনকি বাজারেও এই সব লাইসেন্স হীণ প্রোগ্রাম আকছার কিনতে পাওয়া যায়.

    মাইক্রোসফট্ কোম্পানী কি কম্পিউটার পাইরেট দের রাশিয়াতে মোকাবিলা করতে পারবে? কম্পিউটার জার্নালের সমীক্ষক ইউরি রেভিচ বলেছেনঃ

    "যে সব বাধা নিষেধ উত্পাদক আরোপ করছেন, তা পাইরেট দের আটকাতে পারবে বলে তো মনে হয় না, বাজারে যে জিনিসের দরকার, তা আগে হোক বা পরেই হোক অবশ্যই পাইরেট রা ভেঙে ঢুকবে. প্রথম দিকে হয়ত মাইক্রোসফট্ কোম্পানী কিছুটা ফল পাবে, কিন্তু ইন্টারনেটে কয়েকদিন পর থেকেই সেটাকে কিভাবে এড়ানো যায় তার রাস্তার কথা বলা দেখতে পাওয়া যাবেই. একটা রাস্তা তো এখনই সবাই জানে, স্বয়ংক্রিয় উন্নতি করণ ব্যবস্থা টি স্রেফ বন্ধ করে দেওয়া. এই পরিস্থিতি থেকে বেরোনোর রাস্তাও অনেক দিন ধরেই জানা আছে, পাইরেট দের সঙ্গে রাজনৈতিক যুদ্ধে নেমে কোন লাভ নেই, উচিত্ অর্থনৈতিক যুদ্ধ করা, যে পয়সার বিনিময়ে ব্যবহারকারী লাইসেন্স কিনতে পারবে, তার থেকে যেন তার লাভ হয় যে কেনে নি তার থেকে বেশী. কিন্তু এখনও দেখা যাচ্ছে যে, পাইরেট প্রোগ্রাম ব্যবহার করলেই বেশী সুবিধা, যদিও এটা শুনলে অবাক লাগার ই কথা".

    বর্তমানে রাশিয়াতে Windows – 7 এর প্রফেশনাল ভার্সনের দাম ৭ হাজার রুবল, এই দাম প্রায় একটা কম্পিউটারের দামের সমান. তাই অনেক লোকই দেখেছেন পাইরেট কপি ব্যবহার করলে লাভ বেশী.

এই সময়ে ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যানালিস্ট আলেক্সেই মুসিয়েঙ্কো মনে করেন যে, মাইক্রোসফট্ কোম্পানী নিজের লাইসেন্স বিষয়ের স্বার্থের জন্য যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়েছে, তাতে বিশেষ সুবিধা হবে না. তিনি বলেছেনঃ

"যখন সারা বিশ্বে প্রোগ্রাম বিক্রীর বিষয়টি প্রায় বিনামূল্যে করার চেষ্টা চলছে, তখন মাইক্রোসফট্ কোম্পানীর এই নীতিতে তাদের নিজেদেরই বেশী ক্ষতি হতে পারে, তাদের উচিত্ যাতে কোম্পানীর প্রোগ্রাম বাজারের প্রতিযোগিতার উপযুক্ত হয়, শুধুমাত্র দানবীয় প্রক্রিয়া দিয়ে লাভ বাড়াতে চাইলে কিছু হবে না".