নববর্ষ – বহু দেশের লোকের একটি অন্যতম প্রিয় ও প্রতীক্ষিত উত্সব. মনে করা যেতে পারে যে, এই উত্সবই দেশ, ধর্ম, রাজনীতি এবং এমন কি অর্থনৈতিক সঙ্কটকে উপেক্ষা করে সবাই পালন করে থাকে.

    অবশ্যই ঐতিহ্য অনুযায়ী পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন সময়ে নববর্ষ পালন করা হয়ে থাকে.

    রুশ দেশে পনেরো শ শতক অবধি জুলিয়ান ক্যালেণ্ডার মেনে ১ লা মার্চ বর্ষ বরণ করা হত, আর পনেরো শ শতকের পর ১ লা সেপ্টেম্বর. ১৭০০ সাল থেকে রাশিয়ার মহান জার পিটার দি গ্রেট এর নির্দেশ মত দেশে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মত রুশ দেশেও ১ লা জানুয়ারী কেই নববর্ষ বলে মানা হয়.

    রাশিয়ার লোকেদের জন্য নববর্ষ – একটি ঐতিহ্যময় ঘরোয়া অনুষ্ঠান. পরিবারের সবাইকে নিয়ে বাজী পুড়িয়ে জানালার ওপারে বরফ পড়া দেখে, সান্তা ক্লজের ও স্নেগুরোচকা র মূর্তি ও উপহার ফার গাছের তলায় রেখে পালন করা হয়ে থাকে.

    রাশিয়াতে এই উত্সব খুবই প্রিয়, লোকেরা এখনও মনে রেখেছেন যে, আগে জুলিয়ান ক্যালেণ্ডার মেনে ১৩ থেকে ১৪ ই জানুয়ারী রাত্রে নববর্ষ পালন করা হত. এখন সাধারণতঃ যাঁরা ৩১ শে ডিসেম্বর রাত্রে নববর্ষ ঠিক করে পালন করতে পারেন নি, তারাই এই রাত্রে নববর্ষ পালন করে থাকেন.

    সব মিলিয়ে বলতে গেলে বহু রাশিয়ার লোকই নববর্ষের অনুষ্ঠান দু ই রাত্রেই করে থাকেন. একে অপরকে অভিনন্দন জানানো ও নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাতে একি বছরে দুবার পারলে কেউ কি ছাড়তে চায়? শুভ নববর্ষ!