রাশিয়ার অসামরিক আকাশ পরিবহন বর্তমানে খুবই অপেক্ষায় আছে আধুনিক আঞ্চলিক বিমানের জন্য. দেশের বিমান গুলির সম্পূর্ণ পরিবর্তনের সময় এসেছে বলে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বায়ু পরিবহন সংস্থার প্রধান গেন্নাদি কুরজেনকভ. রাশিয়ার বিশাল আয়তন ও অত্যন্ত দূর্গম্য জায়গার গুলির জন্য বায়ু পরিবহনই জীবনের জন্য অপরিহার্য অঙ্গ.

বিশেষ করে আশা করা হচ্ছে আধুনিক সুখই সুপারজেট – ১০০ বিমানের উপর. এই বিমান ব্যবহার শুরু করা হবে আগামী বছরে. রাশিয়ার এটি প্রথম বিমান যার সম্পূর্ণ তৈরীর পদ্ধতি করা হয়েছে কম্পিউটারে মডেল বানিয়ে. রাশিয়ার বিমান নির্মাণ শিল্পের জন্যও এটি আন্তর্জাতিক সহযোগিতার একটি অভূতপূর্ব নিদর্শন. এত প্রসারিত সহযোগিতা আগে কখনো হয় নি. যেমন, এই প্রকল্পে অংশ নিয়েছেন ফরাসী দেশের এঞ্জিন তৈরী কোম্পানী. তারা শতকরা ৩০ ভাগ সহযোগিতা করেছেন, ইতালির কোম্পানীর সঙ্গে সহযোগিতায় এই প্রযুক্তি ইউরোপে প্রসারিত করার চেষ্টা হয়েছে. রাশিয়াতে এই বিমানের জন্য বেশ কিছু বরাত পাওয়া গেছে. এই ১০০ আসনের আঞ্চলিক বিমানটি খুবই লাভজনক মাঝারি পাল্লার বিমানের বাজারে নিজের জায়গা করে নিতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে. সারা বিশ্বেই বর্তমানে তিন হাজার কিলোমিটার পাল্লার বিমানের চাহিদা অত্যন্ত বেশী.

এই বছরেই প্রথম বার উড়ছে আঞ্চলিক বিমান আন – ১৪৮. আমরা আরও অপেক্ষায় আছি খুবই কম জ্বালানী ও কম শব্দ দূষণের বিমান টি ইউ -২০৪ এবং টি ইউ – ২১৪ বিমানের জন্য, যা বর্তমানের টি ইউ – ১৫৪ বিমানের জায়গা নিতে পারে. গেন্নাদি কুরজেনকভ বলেছেনঃ

"কোন বিমান আমরা পেতে চলেছি তা আমরা জানি, কিন্তু যদি আমরা চাই যে বিমান পরিবহন কোম্পানীরা আমাদের বিমান কিনুক, তবে আমাদের বিক্রীর পরে পরিষেবা এবং মেরামতের জন্য প্রযোজনীয় যন্ত্রাংশ সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান করতে হবে. বর্তমানে সম্মিলিত বায়ু পরিবহন সংস্থা এই সমস্যার সমাধানের জন্য কাজ করছে".

রাশিয়ার সম্মিলিত বিমান নির্মাণ কর্পোরেশনে দেশের সব বিমান নির্মাণ কারী বিখ্যাত কোম্পানী রয়েছে. ২০১৫ সালে স. বি. নি. ক. দেশের সমস্ত বিমান পরিবহন কোম্পানীর জন্য সবচেয়ে বড় বিমান সরবরাহ কারী কোম্পানী হয়ে উঠবে এবং বর্তমানের যে ধারা চলছে, অর্থাত্ বিদেশ থেকে ভাড়া করে অথবা কিনে বিমান পরিবহন ব্যবস্থা চালানো, তার মূল গত পরিবর্তন আনবে.