যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি সংস্থা এবং ন্যাটো জোটের সহযোগিতার জন্য কার্যকলাপের প্রশস্ত ক্ষেত্র আছে. মঙ্গলবার এ মত প্রকাশ করেছেন সংস্থার প্রধান সচিব নিকোলাই বর্দিউঝা, লন্ডনে আন্তর্জাতিক রণনৈতিক গবেষণা ইনস্টিটিউটে বক্তৃতা দিয়ে. তাঁর গভীর বিশ্বাস যে, এ ধরনের আন্তর্জাতিক বিন্যাসের শুধু মিলিত প্রচেষ্টাতেই পৃথিবীতে নিরাপত্তার সবচেয়ে জটিল সমস্যাবলি মীমাংসা করা যেতে পারে. তিনি মনে করিয়ে দেন যে, সংস্থা ২০০৩ সালেই ন্যাটো জোটকে প্রস্তাব করেছিল সন্ত্রাসবাদ, চরমপন্থী দল, আফগানিস্তান, জরুরী পরিস্থিতি, ঝুঁকির রাজনৈতিক মূল্যায়ন এবং অন্যান্য বিষয়ে সহযোগিতা করার. কিন্তু উত্তর আটলান্টিক জোটের তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া দেখানো হয় নি. বর্তমানে দুই সংস্থার পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের পরিপ্রেক্ষিতপূর্ণ ধারা হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন আফগানিস্তানে সৈন্যবাহিনী সম্বলিত বিন্যাসগুলির গঠন, সামরিক কর্মীদের প্রস্তুতি, সীমান্ত অঞ্চলের সহযোগিতা, আফগানিস্তান ও তাজিকিস্তানের সীমান্ত অঞ্চলে সমস্যার সমাধান, নার্কোটিকের চোরা-চালানের বিরুদ্ধে সংগ্রাম.