পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জার্দারি তাঁর দেশকে শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার পূর্ণাধিকারী সদস্য হিসেবে গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়েছেন, যেখানে এ দেশ পর্যবেক্ষকের স্থিতিতে রয়েছে. স্থানীয় টেলিভিশন জানিয়েছে যে, রাষ্ট্রনেতা এর প্রাক্কালে ইস্লামাবাদে শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার প্রধান সচিব বোলাত নুরগালিয়েভের সাথে সাক্ষাতে এ কথা বলেন. জার্দারি উল্লেখ করেন যে, সন্ত্রাসবাদ ও চরমপন্থার বিপদ প্রসারের পটভূমিতে পাকিস্তানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হল শাংহাই সহযোগিতা সংস্থায় পূর্ণাধিকারী সদস্য-পদ, কারণ এ আঞ্চলিক সংস্থার একটি প্রধান উদ্দেশ্য হল মিলিতভাবে সন্ত্রাসবাদী বিপদের প্রতিরোধ করা. পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামকে অন্যতম রাষ্ট্রীয় প্রাধান্য হিসেবে ঘোষণা করেছে. বিগত আড়াই বছরে রাডিক্যাল ইস্লামপন্থীদের দ্বারা আয়োজিত সন্ত্রাসবাদী ক্রিয়ার ফলে দেশে প্রায় আড়াই হাজার জন নিহত হয়েছে. শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার প্রধান সচিবের সাথে সাক্ষাতে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি তাছাড়া সেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকারও উল্লেখ করেন, যা এ সংস্থা পালন করছে আঞ্চলিক বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের বিকাশে. শাংহাই সহযোগিতা সংস্থা গঠিত হয়েছিল ২০০১ সালে, তাতে ঐক্যবদ্ধ রাশিয়া, কাজাখস্তান, কির্গিজিয়া, চীন, তাজিকিস্তান এবং উজবেকিস্তান. ইরান, ভারত, মঙ্গোলিয়া ও পাকিস্তান পর্যবেক্ষকের স্থিতিতে রয়েছে.