এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার সদস্য দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাণিজ্য মন্ত্রীরা বাণিজ্যে উদারনৈতিকরণ ও পুঁজিনিয়োগের সাহায্যে আঞ্চলিক সঙ্গতি সাধনে সহায়তা করার ব্যাপারে সমঝোতায় এসেছে. এ সম্বন্ধে তাঁরা ঘোষণা করেছেন সিঙ্গাপুরে দু দিনব্যাপী সম্মেলনের ফলাফলের ভিত্তিতে. মন্ত্রীরা স্থিরবিশ্বাস প্রকাশ করেন যে, এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অর্থনৈতিক বৃদ্ধি বজায় রাখা প্রয়োজন এবং এজন্য সংস্থার সমস্ত সদস্যের জন্য সমান পরিবেশ গড়ে তোলা প্রয়োজন. সাক্ষাতের অংশগ্রহণকারীরা উল্লেখ করেছেন যে, ভবিষ্যতেও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে রক্ষণমূলক ব্যবস্থার প্রয়োগ হতে না দিতে বদ্ধপরিকর. রাশিয়া এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলির সাথে ব্যবসার প্রক্রিয়া, সেই সঙ্গে শুল্ক প্রক্রিয়া সহজ করার  ধারণা সমর্থন করেছে এবং নিজের তরফ থেকে অতিরিক্ত ব্যবস্থাও প্রস্তুত করছে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছেন রাশিয়ার অর্থনৈতিক বিকাশসংক্রান্ত মন্ত্রী এলভিরা নাবিউলিনা, মন্ত্রী পর্যায়ে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে. নাবিউলিনা ব্যাখ্যা করে বলেন যে, সিঙ্গাপুরে মন্ত্রীদের সাক্ষাতে যে ধারণা আলোচিত হয়েছিল তার ভিত্তিতে ছিল সীমানায়, দুই সীমানার মাঝে এবং সীমানার ওপারেপ্রক্রিয়া সহজ হওয়া উচিত. তাঁর মতে, এটি অতি গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য, এবং তা রাশিয়ার জাতীয় প্রাধান্যের সাথে সুসঙ্গত.