রাশিয়ার প্রশাসনের উপ প্রধান মন্ত্রী এবং দুই দেশের প্রশাসনের বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল এবং সাংস্কৃতিক বিনিময়ের বিষয়ের যৌথ কমিশনের সহ চেয়ারম্যান সের্গেই সবিয়ানিন তাঁর ভারত সফর শেষ করেছেন.

    বিশদ করে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ.

    আগামী ডিসেম্বর মাসের মস্কো শীর্ষ বৈঠকের প্রাক্কালে এই সফর ও মত বিনিময় হয়েছে. সের্গেই সবিয়ানিন ভারতের প্রধান মন্ত্রী ডঃ মনমোহন সিংহ, পররাষ্ট্র মন্ত্রী এস. এম. কৃষ্ণ, পরিবহন মন্ত্রী কমল নাথ, খনিজ তেল ও গ্যাস মন্ত্রী মুরলী দেওরা সহ অন্যান্য দের সঙ্গে দেখা করেছেন. বৈঠকে দুই দেশের সব চেয়ে মুখ্য সহযোগিতা যে বিষয় গুলিতে চালু রয়েছে, সেগুলি নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে. এর মধ্যে প্রাকৃতিক তেল ও গ্যাসের বিষয়ে সহযোগিতা, পারমানবিক শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, মহাকাশ গবেষণা, আধুনিক প্রযুক্তি, টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং ঔষধ উত্পাদন ইত্যাদি রয়েছে.

সমস্যা যে বিষয় গুলিতে আছে, সে গুলির আলোচনাও হয়েছে. এর মধ্যে অনেক দিন ধরেই রয়েছে পারস্পরিক বাণিজ্যের বিষয়টি. ভারত ও রাশিয়ার দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমান দুই দেশের কারোরই মন পূত হচ্ছে না, ক্ষমতার তুলনায় খুবই কম বলে. অক্টোবর মাসে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই বাণিজ্যের পরিমান ২০১০ সালে ১০ বিলিয়ন ডলার ও ২০১৫ সালের মধ্যে ১৫ বিলিয়ন ডলার করার কথা. সবিয়ানিন বলেছেন আশা করা হয়েছে এই বছর পরিমান হবে ৭ বিলিয়ন ডলারের মত.

অন্যান্য বিষয় গুলি নিয়েও আলোচনা হয়েছে, যেমন, ভারত রাশিয়াতে প্রাকৃতিক তেল ও গ্যাস অনুসন্ধান এবং নিষ্কাশনে অংশ নিতে চেয়েছে. সাইবেরিয়ার কেন্দ্রস্থলে তোমস্ক অঞ্চলে দুদিনের জন্য ভারতীয় তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রী মুরলী দেওরা ও তাঁর নেতৃত্বে ভারতীয় প্রতিনিধি দল এসেছিলেন. এই সফরের মধ্যে ভারতীয় প্রতিনিধি দল তোমস্ক অঞ্চলের রাজ্যপাল ভিক্টর ক্রেস ও অঞ্চলের অন্যান্য নেতাদের সঙ্গে দেখা করেছেন. ভারতীয় অতিথিরা তোমস্ক শহরে ভারতের বৃহত্তম খনিজ তেল ও গ্যাসের কর্পোরেশন ওনেগ ভিদেশ কোম্পানীর অধীনস্থ ইম্পিরিয়াল এনার্জ্জি কোম্পানী পরিদর্শন করেছেন, যারা এখানে খনিজ তেল উত্পাদনের জন্য কাজ করছে,

এই সফরের ফল সম্বন্ধে আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ তোমস্ক অঞ্চলের আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক দপ্তরের প্রধান নেলি কেরচেতোভার সঙ্গে আলোচনা করার সময় তিনি বলেছেনঃ

 "প্রাথমিক ভাবে আমরা যে বিষয়ে চুক্তি করেছি তা হল ওনেগ ভিদেশ কর্পোরেশন এই অঞ্চলের তৈল খনি গুলিতে কাজ করার জন্য লাইসেন্স কেনার বিষয়ে আরও বড় ভাবে অংশগ্রহণ করতে পারবে. আজ এই অঞ্চলে ভারতীয় কর্পোরেশন বেশ কয়েকটি তৈল ক্ষেত্রে কাজ করার লাইসেন্স কিনে নিয়েছে ইম্পিরিয়াল এনার্জ্জি কোম্পানীর কাছ থেকে, কিন্তু ওনেগ ভিদেশ আরও তৈল উত্পাদনের ক্ষেত্রে কাজের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে চায় এবং তোমস্ক অঞ্চলের রাজ্যপাল আস্বস্ত করেছেন যে, তিনি ভারতীয় দের সবচেয়ে বেশী সুবিধা করে দেবেন. এই সফরের এটি একটি অন্যতম ফল.

আমরা যৌথভাবে খনিজ তেল ও গ্যাসের ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ তৈরীর জন্য যৌথ প্রচেষ্টায় পড়ানোর ব্যবস্থা করব. ভারতের তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস দপ্তরের মন্ত্রী মুরলী দেওরা রাজ্যপাল ভিক্টর ক্রেস প্রস্তাবিত খনিজ তেল ও গ্যাসের ক্ষেত্রে সহায়ক বিষয় গুলিতে রাশিয়ার উদ্ভাবনী প্রকৌশল তৈরী করার কোম্পানী গুলির প্রযুক্তি ব্যবহারের বিষয়টিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন. আমাদের কোম্পানী গুলি তেলের খনি থেকে বেশী পরিমানে তেল নিষ্কাশের প্রযুক্তি এবং মাটি ও জল থেকে তেল তুলে নেওয়ার জন্য বিশেষ ধরনের দ্রবণ ব্যবহারের প্রযুক্তি, যা পরিবেশ দূষণের হাত থেকে রক্ষা করে তার উদ্ভাবনা করেছে.

মুরলী দেওরা রাজ্যপাল ভিক্টর ক্রেস কে ভারতের মুম্বাই শহরে, যেখানে তিনি নিজে এক সময় মেয়র ছিলেন, সেখানে আসতে ও সহযোগিতার খুঁটিনাটি বিষয় গুলি সম্বন্ধে আলোচনা চালু রাখতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন. শুধু মাত্র তেল ও গ্যাস নয়, অন্যান্য উদ্ভাবনী প্রযুক্তির ক্ষেত্রেও সহযোগিতার কথা বলেছেন. নেলি কেরচেতোভার কথায় আমরা জানি ভারতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবস্থার উন্নতি লক্ষ্যনীয় এবং তোমস্ক অঞ্চলে যে বিশেষ প্রযুক্তি ও অর্থনৈতিক সুবিধা যুক্ত ব্যবস্থা আছে সেখানেও তথ্য প্রযুক্তির বিষয়ে সাফল্যের সাথে উন্নতি হচ্ছে. তাই এই আমন্ত্রণ রাজ্যপালের ভাল লেগেছে. আগামী বছরের প্রথম দিকে এই সফর হবে বলে আশা করা হচ্ছে".

ভারত ও রাশিয়ার আঞ্চলিক ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয়ে মন্ত্রী মুরলী দেওরা ও ভারতীয় প্রতিনিধি দলের রাশিয়ার তোমস্ক অঞ্চল সফর দুই দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান সহযোগিতার নিদর্শন. ভারতের রাষ্ট্রপতি শ্রীমতী প্রতিভা পাতিলের রাশিয়া সফরের সময় রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ও প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন এই আঞ্চলিক সহযোগিতার কথা তাঁদের সাক্ষাত্কারের সময় উল্লেখ করেছেন, আঞ্চলিক ভাবে সহযোগিতা বৃদ্ধি করে দিল্লী ও মস্কো দুই দেশের আর্থ-বাণিজ্য সম্পর্ক কে দৃঢ় করেছে. দুই দেশের মধ্যে সমস্যা গুলির সমাধান হচ্ছে. বিশেষ করে তোমস্ক অঞ্চলের রাজ্যপাল ভিক্টর ক্রেস বলেছেন ভারতের সঙ্গে এই অঞ্চলের সহযোগিতা শুধুমাত্র খনিজ তেল ও গ্যাসের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধ থাকবে না, বরঞ্চ অন্যান্য ক্ষেত্র যেমন, খনিজ দ্রব্য আহরণ, উচ্চ শিক্ষা, ঔষধি নির্মাণ, উচ্চ প্রযুক্তি ও প্রকৌশল ইত্যাদি বিষয় গুলিতেও করা হবে. এর জন্য দুটি দেশেরই সমস্ত আয়োজন আছে বলে তিনি মনে করেন.