কাজাখস্থানের দক্ষিণে "মাতীবুলাক" পলিগনে আয়োজিত প্রায় ৭০০০ সৈন্য সমারোহে আজ "সহ সক্রিয়তা – ২০০৯" নামে যে দ্রুত প্রতিক্রিয়া উপযুক্ত সামরিক বাহিনী গুলির মহড়ার আয়োজন করা হয়েছে, তার অন্তিম দিনে, রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ সেখানে কাজাখস্থান, বেলোরাশিয়া, কিরগিজিয়া, তাজিকিস্থান, আর্মেনিয়া এবং উজবেকিস্থানের রাষ্ট্রপতিদের সঙ্গে "সম্মিলিত নিরাপত্তা চুক্তির" অংশ হিসাবে পরিদর্শনে এসেছেন. এখানে ৩০০ সাঁজোয়া গাড়ী ও ট্যাঙ্ক, বিমান বাহিনী উপস্থিত আছেন. সম্মিলিত বাহিনী সৃষ্টির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ৪ই ফেব্রুয়ারী এই চুক্তি অন্তর্ভুক্ত দেশ গুলির শীর্ষ বৈঠকে. প্রথমতঃ বিশাল কোন সঙ্কট এই দেশ গুলির মধ্যে ভিতর থেকে অথবা বহির্শত্রুর আক্রমণে উদয় হলে এই বাহিনী তা প্রতিহত করবে.