রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ মনে করেন রাশিয়ার প্রধান প্রধান রোগ হল অফলপ্রসূ অর্থনীতি, দূর্নীতিপরায়ণতা, দুর্বল সামাজিক ক্ষেত্র, পোক্ত হয়ে না ওঠা গণতন্ত্র, লোকসংখ্যার নেতিবাচক প্রবণতা এবং অস্থিতিশীল ককেশাস. দমিত্রি মেদভেদেভ www gazeta.ru  ইন্টারনেট সাইটে প্রকাশিত নিজের প্রবন্ধে লিখেছেন, এগুলি খুবই বড় বড় সমস্যা, এমনকি রাশিয়ার মতো দেশের জন্যও.” তবে, তাঁর কথায়, এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করার কোনো দরকার নেই. মেদভেদেভ লিখেছেন, অনেক কিছুই করা হচ্ছে. রাশিয়া কাজকর্ম করে যাচ্ছে. এখন তা দশ বছর আগের মতো অর্ধ-পক্ষাঘাতগ্রস্ত অর্ধ-রাষ্ট্র আর নয়. দেশের ছড়িয়ে পড়া রোগের মধ্যে তিনি আরও উল্লেখ করেন কাঁচামাল বিক্রি করে দীর্ঘকাল কাটানো. নবায়নের উপাদান গঠিত হয়েছিল, মহান পিটার ও পরবর্তী জারদের দ্বারা, আর বলশেভিকদের দ্বারা এবং তা সফলই ছিল. কিন্তু এ সাফল্যের জন্য উচ্চ মূল্য দিতে হয়েছে. তা অর্জিত হয়েছে, সাধারণত, অতিমাত্রার বলপ্রয়োগ করে, সর্বস্ববাদী রাষ্ট্রীয় যন্ত্রের পুরো সুযোগ-সম্ভাবনা ব্যবহার করে,- বলা হয়েছে প্রবন্ধে.