মস্কো আর্মেনিয়া ও তুরস্কের সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সমর্থন করবে বলে ঘোষণা করেছে. রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে যে, এর ফলে আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও শান্তি বাড়বে. ১৯৯৩ সাল থেকে দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত বন্ধ হয়ে রয়েছে এবং কোন কূটনৈতিক সম্পর্কও নেই. সুইজারল্যান্ডের মধ্যস্থতায় গত দুই বছর ধরে আলোচনার পর গত সোমবার তুরস্কের পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে যে, এবারে দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক পরিপ্রেক্ষিতে আলোচনা শুরু হতে চলেছে. আরও দেড় মাস এই আলোচনা চলবে এবং দুটি প্রোটোকল স্বাক্ষর হলে তবে আলোচনার শেষ হবে. এই প্রোটোকলের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয় টিও থাকবে.