রাশিয়া ও চীনের সৈন্যবাহিনীর অনুশীলনের "শান্তির মিশন – ২০০৯" সাফল্যের সাথেই শেষ হল.ত্রই অনুশীলন কার্যক্রম শুরু হয়েছিল ২২ জুন রাশিয়ার হাবারোব্সকী শহরে.প্রায় তিন হাজার সৈন্য এই অনুশীলনে অংশ নিয়েছে. সন্ত্রাসবাদীদের দমনে সম্মিলিত ভাবে অংশগ্রহনের অনুশীলনই এর উদ্দেশ্য. সাজানো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সামরিক বাহিনীর সমস্ত রকমের অস্ত্রেরই ব্যবহার করা হয়েছে, যেমন- আক্রমণাত্মক বিমান বাহিনী, সাঁজোয়া গাড়ী ও কামান. নিজেদের কৌশল প্রদর্শন করে রাশিয়া ও চীনের পদাতিক বাহিনীর সব থেকে কুশলী স্পেশাল টাস্ক ফোর্স."শান্তির মিশন” কার্যক্রমে প্রায় ৪৫টির মত যুদ্ব বিমান ও হেলিকপ্টার অংশ নেয়.