রাশিয়া বিশ্বে খাবার জল পরিশোধন ও সরবরাহের ব্যাপারে অগ্রণীর ভূমিকা নিতে তৈরী কারণ এই দেশে সব থেকে বেশী মিস্টি জলের সঞ্চয় রয়েছে. আন্তর্জাতিক ফোরাম "পরিষ্কার জল" এর মুখ্য আয়োজক ও বর্তমানের রাশিয়ার পার্লামেন্টের প্রধান বরিস গ্রীজলভ বলেছেন যে, রাশিয়াতে আন্তর্জাতিক জল সংক্রান্ত সংস্থার প্রধান অফিস হওয়া উচিত্.

    বর্তমানে বিশ্বে প্রায় ১০০ কোটি লোক পরিষ্কার জল পায় না, প্রায় ২৫ কোটি লোক অপরিষ্কার জল বাহিত রোগে ভুগছে.

    বরিস গ্রীজলভ বলেছেন যে, পৃথিবীতে মাত্র আড়াই শতাংশ জল হল পানীয় জল আর তার ২০ শতাংশ আছে রাশিয়াতে. সুতরাং খনিজ তেল ও গ্যাসের মত জলও স্ট্র্যাটেজিক সম্পদ এবং রাশিয়ার জল রপ্তানী করা উচিত্.

    "এই সম্পদকে অর্থে পরিণত করলে তা বিশ্বের অর্থনৈতিক মন্দার সময়ে আমাদের দেশের বাজেটের জন্য প্রচুর লাভজনক হতে পারে. আমি উল্লেখ করছি, তেলের মতো পাইপ লাইন দিয়ে জল সরবরাহের ব্যবস্থার কথা, এর জন্য প্রতি ১০০ কিলোমিটারে একটি করে পাম্প হাউস বসাতে হবে. আর আমার মনে হয় যে, ৫০ থেকে ১০০ হাজার টনের ট্যাঙ্কার ব্যবহার করে সমুদ্র পারে জল পাঠানো যেতে পারে. আমি যা বুঝি তাতে আফ্রিকা ও এশিয়াতে জলের সমস্যা প্রচুর. আর সেখানের জলে আছে ক্ষতিকারক নোংরা. যেমন, ভিয়েতনাম ও আরো কয়েকটি আফ্রিকার দেশে জলে আর্সেনিকের পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত. এমনকি পরিষ্কার জলেও সেখানে আর্সেনিক আছে আর এর অর্থ নিশ্চিত ভাবে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাওয়া. তাই আফ্রিকাতে ট্যাঙ্কার ভর্তি করে জল রপ্তানী করা ব্যবসায়িক দিক থেকে লাভজনক. আমি মনে করি রাশিয়ারই উচিত্ জল পরিশোধন ও সরবরাহ করার বিষয়ে নেতৃত্ব দেওয়া".

    পার্লামেন্টের স্পীকার আরও যোগ করেছেন যে, জনসাধারনকে পরিষ্কার জল সরবরাহ করা রাশিয়ার জন্যও একটি মুখ্য বিষয়. উনি বলেছেন বর্তমানে ৪০ শতাংশ রাশিয়ার নাগরিক পরিষ্কার জল পাচ্ছেন না. ২০১০ সাল থেকে নেওয়া পরিকল্পনা অনুযায়ী এই সমস্যার সমাধান হতে পারে.

    ৬০০ টি রাশিয়ার শহরে এর মধ্যেই নিজেদের নেওয়া পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হচ্ছে. এর মধ্যে অন্যতম নেতৃত্ব দিচ্ছে সেন্ট পিটার্সবার্গ. ২০০৪ সাল থেকে উত্তরের রাজধানীর জল সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে. এই শহরে জল পরিষ্কারের জন্য ক্লোরিন ব্যবহার বন্ধ হয়েছে. সমস্ত জল পরিশোধন কেন্দ্র গুলিতে হাইপোক্লোরাইড সোডিয়াম ও অতি বেগুনী রশ্মির ব্যবহার করা হচ্ছে. জলের জীবাণু পরিশোধন করার জন্য এই ব্যবস্থা অনেক নিরাপদ ও ফলপ্রসূ. সেন্ট পিটার্সবার্গের অনাময় দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী জল পরিশোধনের নূতন ব্যবস্থা চালু হওয়ার পর থেকে সেখানে হেপাটাইটিস এ রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৮ গুন কমেছে, কাজেই এর উপকারিতা অবশ্যই বুঝতে দেরী করতে হয় নি. ডাক্তারদের মত অনুযায়ী পরিষ্কার জল মানুষের আয়ু অন্ততঃ ৫ থেকে ৭ বছর বাড়িয়ে দেয়.