পোড়া মাটি আর চীনে মাটির বাংলাদেশী বাসনের প্রতি মস্কোর বাসিন্দা দের মনোযোগ আর চাহিদা যে আছে, তারই প্রমাণ পাওয়া গেল মস্কোর কেন্দ্রে চীনে পুকুর সেরামিকস্ লিমিটেডের নতুন দোকান টির খোলার পর কয়েক দিনের ভীড় দেখে. ক্রেতারা উত্সাহের সঙ্গে কিনেছেন চায়ের সরঞ্জাম আর ডিনার সেট. দাগেস্তান রাজ্যের রাজধানী মাখাচকালার ব্যবসায়ী সাকিনাত উমারভা রাশিয়ার বাজারে বাংলাদেশের জিনিসের প্রসার করছেন. বিগত ১২ বছর ধরে তিনি চীনে পুকুর সেরামিকস্ লিমিটেড ও আরও নানা বাংলাদেশী কোম্পানীর সঙ্গে সাফল্যের সাথে কাজ করছেন. উনি জানিয়েছেন যে, বাংলাদেশ থেকে দ্রুত জিনিসপত্র রাশিয়া আনার ব্যাপারে উনি উত্তর দক্ষিণ পরিবহন ব্যবস্থার মাধ্যমে, যা বাংলাদেশের বন্দর থেকে ইরানের বন্দর হয়ে রাশিয়ার কাস্পিয়ান সাগরের বন্দরে আসে, সেই পথ ব্যবহার করেন. মস্কোতে এই দোকানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে রাশিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মিজারুল কায়েস বলেছেন যে, তিনি দুই দেশের ব্যবসার উন্নতি দেখে খুশী. উনি উল্লেখ করেছেন যে, এই বাংলাদেশী কোম্পানী টির জিনিস খুব তাড়াতাড়ি ই সেন্ট পিটার্সবার্গ ও ভ্লাদিভস্তকে পাওয়া যাবে.