রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে ককেশাস-২০০৯ নামে সোভিয়েত-পরবর্তী যুগের বৃহত্তম সামরিক মহড়া শুরু হয়েছে. তাতে অংশ নিচ্ছে ৮ হাজারেরও বেশি সামরিক কর্মী, সেই সঙ্গে দক্ষিণ ওসেতিয়া ও আবখাজিয়ায় রাশিয়ার সামরিক ঘাঁটির সৈনিকরা, আর তাছাড়া ভারী সামরিক প্রযুক্তি – ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া গাড়ি এবং আর্টিলারী-কামান. চিত্রনাট্য অনুযায়ী, অঞ্চলে উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতি এবং সশস্ত্র সঙ্ঘর্ষ দেখা দেওয়ার বিপদের পরিবেশে সৈন্যবাহিনীর প্রায়োগিক ক্রিয়াকলাপ অনুশীলন করার কথা. বিশেষ করে, অনুশীলনমূলক অভিযান চালানো হবে সন্ত্রাসবাদী সংস্থাগুলির নেতা ও অংশগ্রহণকারীদের ধ্বংস করা, তাদের ঘাঁটি ও প্রস্তুতি-কেন্দ্র ধ্বংস করার. সামরিক ক্রিয়াকলাপের কৌশল অনুশীলন করা হবে গত বছরের আগস্টে জর্জিয়াকে শান্তির জন্য বাধ্য করার অভিযানের সময় প্রাপ্ত অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে, বলেছেন উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী আলেক্সান্দর কলমাকোভ. এ মহড়া চলবে ৬ই জুলাই পর্যন্ত.