যৌথ নিরাপত্তার চুক্তি সংস্থার দেশগুলির নেতারা তত্পর প্রতিক্রিয়ার যৌথ বাহিনী গঠনের চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন. তা গঠিত হচ্ছে সন্ত্রাসবাদ ও সীমান্তপারের অপরাধের মতো বিপদ প্রতিহত করার জন্য, এবং আঞ্চলিক সঙ্ঘর্ষ মীমাংসার জন্য, বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ. তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, মস্কোয় গৃহীত সিদ্ধান্তে বেলোরুশিয়া যোগ দিতে পারে. বেলোরুশিয়ার নেতা আলেক্সান্দর লুকাশেনকো এ শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিতে অস্বীকার করেছেন. তার কারণ হল, বেলোরুশিয়ার দুগ্ধজাত খাদ্যদ্রব্যের সরবরাহে রাশিয়ার দ্বারা প্রবর্তিত বাধানিষেধে মিনস্কের অসন্তোষ. এই যৌথ নিরাপত্তার চুক্তি সংস্থায় অন্তর্ভুক্ত রাশিয়া, আর্মেনিয়া, বেলোরুশিয়া, কাজাখস্তান, কির্গিজিয়া, তাজিকিস্তান ও উজবেকিস্তান.