জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহের মন্ত্রীদের সম্প্রতি ইতালির লিচে দুই সপ্তাহের টানা বৈঠকের পর বিশ্ব অর্থনেতিক মন্দা মোকাবেলায় নতুন নতুন কর্ম পরিক্লপনার কথা আলোচনা করা হয়. অর্থমন্ত্রীরা নিজ নিজ দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরেন. মন্ত্রীরা ত্রক সুরে বলেছেন যে, বিশ্ব অর্থনীতি যদিও ধীরে ধীরে মন্দা থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে তবে ত্রখনও চুড়ান্তভাবে তা বলা যাচ্ছে না.
“বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থতি ত্রখনও সংঙ্কটময়, সব প্রশ্নের যথার্থ উত্তর ত্রখনও পাওয়া যাচ্ছে না. কিন্তু তারপরও জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহের অর্থমন্ত্রীদের ত্রই সম্মেলন থেকে যে সীদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা অবশ্যই ত্রক বড় সাফল্য. যা বিশ্ব অর্থনীতিতক পূর্বের ন্যায় স্বাবাভিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হবে”. ইতালির লিচে জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহের অর্থমন্ত্রীদের সাথে সাক্ষাত শেষে এ কথা বললেন রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী আলেক্সী কুদরীন. কুদরীন বলেন, সম্মেলনে অংশ নেয়া প্রতিটি দেশেরই অর্থমন্ত্রীরাই অত্যন্ত তত্পরতার সাথে ত্রই সম্মেলনে নিজ নিজ মতামত তুলে ধরেন. ত্রবং অর্থনৈতিক মন্দায় পরা বিশ্ব অর্থনীতির সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করেন জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহের অর্থমন্ত্রীরা.
কেউ কেউ আলোচনায় মতামত প্রদান করেন যে, বর্তমানে বিশ্ব চলমান অর্থনেতিক কাঠামোকে কিছুটা সংকুচিত করা দরকার. আবার কেউ ত্রর প্রতুত্তরে বলেন যে, সংকুচিত নয়, বরং ত্রই কাঠামো ব্যাবস্থাকে সংরক্ষন করেই আমাদের পরবর্তি চিন্তা করতে হবে.
নিজের চুড়ান্ত মতামতে রুশ অর্থমন্ত্রী আলেক্সী কুদরীন বলেন, জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহ বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবেলায় ত্রক প্রকার মরিয়াই হয়ে উঠেছে. ত্রবং যে বিষয়ে সবচেয়ে বেশী গুরুত্ব দেয়া উচিত তা হল নিজ নিজ দেশে মন্দা মোকাবেলায় বহুমুখী ব্যাবস্থা গ্রহন করা .যদিও তা ধীর গতিতে অগ্রসর হতে পারে,তদুপরি তা হবে সবচেয়ে বেশী কার্যকরী বলেলেন কুদরীন.
ইতালির লিচে ত্রই সম্মেলনে যেসব বিষয়ে সীদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে তা নিয়েই আগামী জুলাই মাসে আকবিলে আবারও বসবেন বিশ্বের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী জি-৮ ভুক্ত দেশসমূহের অর্থমন্ত্রীরা.