নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি নিয়মিত সদস্য দেশ এবং তার সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের প্রতিনিধিরা উত্তর কোরিয়ার সম্বন্ধে সিদ্ধান্তের খসড়ার কাজ প্রায় শেষ করে এনেছেন. রাশিয়ার পক্ষ থেকে রাষ্ট্রসংঘের নিয়মিত প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন জানিয়েছেন যে, এই দলিলের বয়ানে সব পক্ষেরই সায় আছে দেখা যাচ্ছে. গত তিন সপ্তাহ ব্যাপী আলোচনায় উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হবে সে বিষয়ে প্রতিনিধিরা সহমতে আসতে পারছিলেন না. রাশিয়া স্বীকার করে যে, এই দলিলে পিয়ং ইয়ং এর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার প্রয়োজন আছে, তা সত্ত্বেও এই উপদ্বীপ অঞ্চলের পারমানবিক সমস্যা নিয়ে আলোচনার অবকাশ রাখার কথাও বলা উচিত. মে মাসের শেষে মাটির গভীরে আণবিক বিস্ফোরণ ছাড়াও উত্তর কোরিয়া থেকে কয়েকটি স্বল্প পাল্লার রকেট ছোঁড়া হয়েছিল.বর্তমানে এই দেশ দূরপাল্লার ব্যালিস্টিক মিসাইল ছোঁড়ার তোড়জোড় করছে.