তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে রাশিয়া ত্রখন বিশ্বর প্রথম সারির দেশগুলির মধ্যে অন্যতম. ত্রবং সর্বশেষ সময় রাশিয়া ত্রই সেক্টরে যথেষ্ট উন্নতি করেছে. যার সুফল রুশী জনগন ইতিমধ্যে পেতে শুরু করেছে. আর ত্রই মন্তব্য পোষন করলেন রাশিয়ার তথ্য ও যোগাযোগ উপমন্ত্রী আলেক্সেই সলদাতব.মস্কোতে “তথ্যপ্রযুক্তি ও ইউরোত্রশিয়” শীর্ষক ৫ম আন্তর্জাতিক ফোরামে বক্তৃতায় এ কথা বলেন.
আলোচিত ত্রক বানী যে ‘জাতি তথ্য-প্রযুক্তিতে যত বেশী অগ্রসর সে জাতিই আজ তত বেশী উন্নত’ উল্লেখ করে আলেক্সেই সলদাতব বলেন, আধুনিক পৃথিবীতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে যে কত গুরুত্বপূর্ন তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না.তথ্য-প্রযুক্তি আজ মানুষের জীবনের ত্রক অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিনত হয়েছে.আর ইন্টারনেটের কল্যানে মানুষের জীবনেও ত্রনেছে আমুল পরিবর্তন. যেকেন প্রয়োজনীয় তথ্য নিমেষেই ইন্টারনেটের কল্যানে তা পাওয়া যায়. আর ত্রই ইন্টারনেট পৃথিবীকে ত্রনে দিয়েছে আমাদের হাতের মুঠোয়ে.
রাশিয়ার গাস দুমার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি কোমিটির প্রধান মিখাইল গ্রিশানকোব বলেন, নিরপেক্ষ তথ্য পাওয়ার অধিকার প্রতিটি নাগরিকেরই রয়েছে. আর রাশিয়া ২০০২ সাল থেকে এ সংক্রান্ত বিশেষ ত্রক নীতিমালাও প্রনয়ন করেছে. স্বয়ং রাষ্ট্রপতি এ ব্যাপারে বিশেষ জোর দেয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়কে তাগিদ দিয়েছেন.
ইতিমধ্যে রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা ত্রফত্রসবে তথ্য নিরাপত্তাকে বিশেষ গুরুত্বপ্রদান করে এ ক্ষেত্রে সর্বাদিক সতর্ক ব্যাবস্থা গ্রহন করেছে . ত্রফত্রসবের তথ্যা নিরাপত্তা কেন্দ্রর দায়িত্বে নিয়েজিত দিমিত্রি প্রাবিকব বলেন, কিছুদিন পূর্বে ত্রফত্রসবের অফিসিয়াল সাইটে অজ্ঞাত ঠিকিনায় সন্ত্রাসী হামলার হুমকি প্রদান করা হয়েছে. পরবর্তীতে সাইটিটর আইপি ঠিকানা যোগোযোগ করে দেথা যায় যে তা মার্কিন যুক্তরাষ্টের.পরে ঐ ঠিকানায় যোগাযোগ করলে সেখান থেকে অস্বীকার করা হয়. দিমিত্রি প্রাবিকব রেড়িও রাশিয়াকে দেয়া ইন্টারভিউতে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ন তথ্য জানান.দিমিত্রি প্রাবিকব বলেন, ত্রফত্রসবের অফিসিয়াল সাইটে প্রতিবছর ২মিলিয়ন হ্যাকারের সম্মুখিন হচ্ছে. ত্রকদল বিশেষজ্ঞ প্রতিনিয়ত সাইটি হ্যাকারমুক্ত রাখতে কাজ করে যাচ্ছে.