আর কিছুদিন পরই বিশ্বর সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রধান দৃষ্টি থাকবে রাশিয়ার ইকিতিরিনবুর্গে. কারন ত্রখানেই আর স্বল্প দিনের ব্যাবধানে অনুষ্ঠিত হবে দুটি প্রধান আন্তর্জাতিক সম্মেলন.সাংঙ্গাই সহযোগিতা সংস্থা ত্রবং ব্রাজিল,রাশিয়া,ভারত ও চীন কে নিয়ে গঠিত ত্রই চারটি উন্নয়নশীল দেশগুলোর সংস্থা(বিরিইকের) সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে.
রাশিয়ার উরাল শহরে সাংঙ্গাই সহযোগিতা সংস্থার এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ জুন.যদিও সংস্খাটির মেয়াদ চলতি বছরে আট বছর পূর্ন হল কিন্তু ত্রই স্বল্প সময় অনেক গুরুত্বপূর্ন ইস্যু নিয়ে কাজ করেছে.সেই কথেই বললেন আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক সম্পর্ক বিষয়ক বিশষ্ট পর্যবেক্ষক আলভের্ত পাপোইয়ান.রেডিও রাশিয়াকে দেয়া ত্রক সাক্ষাতকারে তিনি জানান,ত্রই সংস্খাটি শুরু থেকেই অনেক দায়িত্বশীলভাবে কাজ করে যাচ্ছে.ত্রখানকার সদস্য রাষ্ট্রসমূহ –রাশিয়া,চীন,কাজাকিস্তান,কিরগিজস্তান,তাজাকিস্তান ও উজবেকিস্তান . সংস্খাটির কার্যক্রমের মধ্যে অন্যতম হল প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে অভিন্ন সার্খসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করা. ত্রবং আন্তর্জানিক সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করা.
অন্যদিকে বিশ্বের চারটি গুরুত্বপূর্ন অর্থনৈতিক উন্নয়নশীল দেশগুলোকে নিয়ে গঠিত সংস্থা ব্রাজিল,রাশিয়া,ভারত ও চীন (বিরিইকের )সম্মেলন সম্পর্কে আমাদের বিশেষজ্ঞ বলেন, বিগত কয়েক বছরে বিশ্বে অর্থনৈতিক উন্নয়নে ত্রই চারটি দেশই সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছে. ত্রবারের ইকিতিরিনবুর্গের সম্মেলনে যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে তা হল বর্তমান অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবেলায় সদস্য রাষ্ট্রসমূহের গৃহিত কার্যক্রমের পর্যালোচনা ও ত্রকটি নতূন আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক কাঠামো গঠন করা.সম্প্রতি ক্রেমলিনে বিরিইকের সদস্য দেশগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে মিলিত বৈঠকে রুশ রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদবেদেভ বলেন, সম্মেলন হবে কার্যকর ও মর্যাদাসম্পন্ন. বিশ্ব অর্থনৈতিক নিরাপত্তা বিষয়ক ত্রকটি কাঠামো গঠন বিষয়ে ঐক্যব্ধভাবে কাজকরার মত বিষয়বলী নিয়েও আলোচনা হবে বলে.
উল্লেখ্য ত্রই প্রথমবারের মত রাশিয়া বিরিইকের সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছে. সম্মেলন আয়োজন করতে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে.