আটলান্টিক মহাসাগরে পাওয়া ধ্বংসাবশেষ ফরাসী এয়ার ফ্রান্স বিমান কোম্পানির হারানো বিমানের. ব্রেজিলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নেলসন জোবিম জানিয়েছেন যে, ৫ কিলোমিটার এলাকায় ছড়িয়ে পড়া টুকরোগুলি সন্দেহের অবকাশ রাখে না যে এগুলি এয়ারবাসের. সোমবার রিও-দে-জেনিরো থেকে প্যারিসে রওনা হওয়া এ বিমানটি ঝড়ের এলাকায় প্রবেশের পরে রেডার থেকে হারিয়ে যায়. বিমানটিতে ছিল ৩২টি দেশের ২২৮ জন নাগরিক, তাদের মধ্যে একজন ছিল রাশিয়ার. আটলান্টিক মহাসাগরে বিমানটি পড়ার জায়গায় রওনা হয়েছে ব্রেজিল, ফ্রান্স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও হল্যান্ডের কয়েকটি সামরিক ও মালবাহী জাহাজ. এ সব জাহাজে বিমানের অংশগুলির অনুসন্ধান এবং লোকেদের উদ্ধারের জন্য প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত সাজ-সরঞ্জাম আছে. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ এ দুর্ঘটনা উপলক্ষে ফ্রান্স ও ব্রেজিলের নেতাদের সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন.