রাশিয়াতে এই বছরের মার্চ– এপ্রিল মাস থেকেই কাজের বাজারে স্থিতিশীলতা লক্ষ করা যাচ্ছে, আর এপ্রিলের শেষ থেকে বেকার সূচকের রেখার বাঁক নিচের দিকে. উপ প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার জুকভ আজ রাশিয়ার অন্য অঞ্চল গুলির সঙ্গে আয়োজিত এক ভিডিও – কনফারেন্সে এই ঘোষণা করেছেন. ওঁর বক্তব্য মতে রাশিয়াতে দ্বিতীয় দফায় বেকারত্ব বৃদ্ধির কোন গুরুতর সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না. জুকভ বলেছেন যে, দেশে সরকারী ভাবে স্বীকৃত বেকারের সংখ্যা সাড়ে বাইশ লক্ষের কাছাকাছি. বেকারত্ব বৃদ্ধির প্রখর সমস্যা দেখা দিয়েছিল ২০০৮ সালের অক্টোবর মাসের পর থেকে. তার পর থেকে, উপ প্রধানমন্ত্রীর মতে রাশিয়ায় বেকারের হার বেড়েছিল সাড়ে সাত থেকে দশ ভাগ কর্মক্ষম লোকেদের মধ্যে. এই হারের সবচেয়ে দ্রুত পরিবর্তন দেখা গিয়েছিল জানুয়ারি –ফেব্রুয়ারি মাসে. সংযুক্ত রাষ্ট্রের জন্য গৃহীত সরকারী বেকারত্ব নিরোধক পরিকল্পনা গুলি ও ক্ষুদ্র শিল্পের জন্য সরকারী সাহায্য এই নেগেটিভ প্রবণতাকে ভাঙতে সাহায্য করেছে বলে জুকভ মনে করেন. উনি আরও বলেছেন যে, সরকার বাকি বেকার দের জন্য স্বনির্ভরতা অর্জনে ও শিক্ষাখাতে খরচ আরও বাড়িয়েছে.