বিশ্বের পন্যদ্রব্যের রিজার্ভ অবশ্যই আন্তর্জাতিক পদ্ধতির মাধ্যমে হওয়া উচিত. রাশিয়ার ডেলিগেশন কতৃক প্রস্তাবিত উদ্বোগ এ ধরনের সংস্থা গঠনের বিষয়ে G-8 কৃষি বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহনকারী সকল সদস্য সমর্থন করেন. G-8 ভুক্ত সদস্য দেশের কৃষি মন্ত্রীরা ইতালির ত্রেবিজো শহরে মিলিত হয়েছেন. G-8 এর কৃষি মন্ত্রীদের স্বাক্ষাত প্রথমবারের মত গ্লোবাল পন্যদ্রব্যের সমস্যা নিয়ে মিলিত হয়েছেন. এই প্রস্তাব রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভের পক্ষ থেকে এসেছে. গত বছর জাপানী G-8 এর সামিটে প্রেসিডেন্ট মেদভেদেভ এই আইডিয়া প্রস্তাব করেন. এই শীর্ষ সম্মেলনে শীর্ষস্থানীয় দেশের কৃষি মন্ত্রী ছাড়াও দ্বিতীয় G-8 নামে অভিহিত তাদের সহকর্মীরা সম্মেলনে অংশ গ্রহন করবে. দ্বিতীয় G-8 এর সদস্যরা হলেন চীন, ব্রাজিল, ভারত,মেক্সিকো, দক্ষিন আফ্রিকা, মিশর, আর্জেনটিনা ও অস্ট্রেলিয়া.
ত্রেবিজো সম্মেলনে রাশিয়ার পক্ষ হতে কৃষিমন্ত্রী এলেনা স্ক্রীনিক প্রতিনিধীত্ব করেন. তিনি বলেন রাশিয়ার ডেলিগেশন যে প্রস্তাব দিয়েছে তা সম্মেলনের ডিক্লারেশনে স্থান পেয়েছে. বিশেষ করে এই প্রস্তাব. এই প্রস্তাবের বিশেষত্ব হল তা খুবই স্বচ্ছও খোলামেলা. এ বিষয়ে রাশিয়ার কৃষক ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট আরকাদী গ্লোচেভস্কী বলেন, রাশিয়ার পক্ষ থেকে বিশ্বের পন্যদ্রব্যের রিজার্ভের মেনেজমেন্ট, মনিটরিং ও আন্তর্জাতিক স্থিতিশীল তহবিল গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে. G-8 এর কৃষিমন্ত্রীরা এই প্রস্তাবকে সমর্থন জানিয়েছেন এবং আগামি জুনে G-8 এর রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের স্বাক্ষাতে আরো আলোচনা করা হবে. এছাড়াও আমরা আগামি ৬-৭ জুনে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবাগে বিশ্ব রবি শষ্য ফোরামের আয়োজন করেছি. এ বিষয়ে আরো পর্জালোচনা করা হবে. সে ফোরামে ৮০টির অধিক দেশের কৃষি মন্ত্রীদের আমন্ত্রন করা হয়েছে এবং অনেক দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানরাও অংশগ্রহন করবে. ফোরামে এমন ধরনের মেকানিজম বের করা হবে যে বিশ্বের স্পন্য ও মদ্যদ্রব্যের স্থিতিশীলতার ভারসাম্য বজায় থাকবে যাতে গ্রাহক ও উত্পাদনকারীরা কেওই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়.
ইতালিতে এই সম্মেলনে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য সংস্থার প্রতিনিধী উপস্থিত হয়েছে. সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রীরা সরবসম্মতভাবে বিশ্ব খাদ্য সংস্থার সংস্করনের বিষয়ে প্রস্তাব করেন.
রাশিয়ার কৃষিমন্ত্রী এলেনা স্ক্রীনিক বলেন, ডিক্লারেশনের সিদ্ধান্ত গ্রহনের সময় খোলামেলা আলোচনা হয়েছে. রাশিয়া খাদ্য দ্রব্যের বাজার এর নিয়ন্ত্রন প্রভাবের ন্যায়নিতীর বিষয়ে চাপ প্রয়োগ করেন. রাশিয়ার মন্ত্রী তার সহকর্মীদের স্মরন করিয়ে বলেন, কৃষিক্ষেত্রে রাষ্ট্রের ব্যপক সমর্থনের মাধ্যমে অর্থনীতির বিকাশ সম্ভব নির্দিষ্ট সময়ের জন্য. রাশিয়ার উদ্বোগী প্রস্তাবের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ডিক্লারেশনের দলিলে স্থাপন সম্ভব হয়েছে খাদ্য দ্রব্য বাজারের আর্থিক স্পেকুলেশনের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবার প্রয়োজনীয়তা.
সম্মেলনে অংশগ্রহনকারী কৃষিমন্ত্রীরা ঐক্যমত পোষন করে বলেন এই সংকট সময়ের সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন বিষয় খাদ্যদ্রব্যে মানবাধীকার লংঘন না করে সব মানুষকে খাইয়ে জীবিত রাখা. G-8 কৃষি সম্মেলনের উদ্বোগী প্রস্তাব জুলাই এ G-8 সামিটে প্রদান করা হবে যা অনুষ্ঠিত হবে ইতালিতে.