0রাশিয়া ও জার্মানী পরস্পর সহযোগিতার চুক্তি সম্পাদন করেছে. গত ২রা অক্টোবর রাশিয়া সেন্ট পিটারবার্গে প্রেসিডেন্ট দমিত্রি মেদভেদেভ ও কনসোলার আংগেলা মেরকেল এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়. রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান দমিত্রি মেদভেদেভ কি ধরনের চুক্তি হয়েছে সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, প্রথমত, সক্রিয়ভাবে দুটি বিষয়ের উপর জোর দিয়েছি তাহল বিদ্যুত ও জ্বালানী শক্তির বৃদ্ধিকরন ও স্বাস্হ্যসুরক্ষা শিল্পের উন্নতিকরন. দ্বীতিয়ত, সঠিক কো অরডিশনে দ্বীপাক্ষিক সহযোগিতা এবং প্রতিনিয়ত সংলাপ দুদেশের অর্থমন্ত্রী পর্যায়ে এবং জার্মানির চ্যান্সেলর এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সহকারির মধ্যে সংলাপ.


0দমিত্রি মেদভেদেভ আশা পোষন করে এই সংলাপের মাধ্যামে দুদেশের ব্যাবসায়ীদের মধ্যে উদ্দিপনার সৃষ্টি হবে এবং এর মাধ্যমে তৈরী হবে একটি বিশেষ প্রক্রিয়া যা আংগেলা মেরকেল প্রস্তাব করেছেন ‘’উন্নতির জন্য অংশীদারত্ত’’.


0রাশিয়া ও জার্মানির পরস্পর সহযোগিতায় নিরাপদ বিশ্বের ব্যাপারে. এই দুই রাষ্ট্রের আলোচনায় উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলি হল মানব বিধ্বংসী অস্ত্রের প্রতিরোধ. আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ ও আন্চলিক সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাবে.


0রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি বলেন কাফকাজের ঘটনায় এই প্রমান করে যে বর্তমান ব্যাবস্থায় বিশ্বকে নিরাপদ রাখতে হটকারী আগ্রাসীদের প্রতিরোধ সম্ভব নয়. তাই এই বিষয়ে দমিত্রি মেদভেদেভ তার দেয়া নতুন প্রস্তাব ইউরোপের নিরাপত্তা চুক্তির বিষয় স্মরন করেন.


0রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান বিশ্বে বর্তমান ফিনান্সীয়াল সংকটের কথাও বলেন. দমিত্রি মেদভেদেভ বলেন G-8 গ্রুপে বিশ্বের অন্যতম অর্থনৈতিক খেলোয়াড়দের অর্থাত চীন, ভারত ও ব্রাজিলকে বাহিরে রেখে বিশ্বের নতুন অর্থনৈতিক পরিকল্পনায় মানচিত্র তৈরী করা সম্ভব নয়.


0দমিত্রি মেদভেদেভ ট্রান্সসাইবেরিয়ান প্রজেক্টের গুরুত্ব আরোপ করেন যার মাধ্যমে জার্মানি ও পশ্চিমে ইউরোপের কিছু দেশে রাশিয়ার গ্যাস সরবরাহ করা হবে. এই প্রজেক্টের মাধ্যমে সকল সদস্য দেশ উপকৃত হবে.


0সেন্ট পিটার্সবার্গে রাশিয়া ও জার্মানির উচ্চ পর্যায়ের শীর্ষ বৈঠক দুদেশের অংশীদারত্বের মাধ্যমে বিশ্বে এগিয়ে যাওয়ার প্রবনতা শুরু হল. এটা অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য যে বর্তমান বিশ্বে পরিবর্তনশীল পরিবেশে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও অর্থনীতি পরিবর্তনশীল.