0চেক প্রজাতন্ত্রে সে দেশের জনগন গনসাক্ষরের আয়জন করছে. গনভোট আয়জনে যাতে তাদের দেশে আমেরিকান রাডার স্থাপন বন্ধ রাখা হয় চেক সরকার সে দেশের জনগনের মতামতকে উপেক্ষা করে মার্কিন প্রশাসনিকের সাথে এক সম্মতি চুক্তি সাক্ষর করেন. যেখানে উল্লেখ রয়েছে প্রাগা থেকে ৫০ কি.মি দূরে মার্কিন রাডার স্থাপনের ব্যাপারে.


0মিরোসলাভ তাপোলানেক এর মন্ত্রীসভামনে করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একমাত্র চেকপ্রজাতন্ত্রকেই নির্বাচন করেছেন তাদের রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যাবস্থায় রাডার স্থাপনায় এটা তাদের বিশেষ যোগ্যতাই মনে করেন. এমনকি চেকপ্রজাতন্ত্র তাদের বৃহত্তম জোট nato এর সাথে আলোচনা করারও দায়বদ্ধতা মনে করেনি. যেখানে সর্বো ইউরোপিয় সম্মতির প্রোয়জন. চেকের কোয়ালিশনে সরকার মনে করে জোটবদ্ধ সম্পর্কের দিক থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রই সবার উপরে, তাছাড়া ইউরোপিয় জোট আজ হোক কাল হোক মার্কিন রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যাবস্থার বিরুদ্ধে ঢুকবে. অন্যদিকে রাশিয়া উক্তি যে বিশ্বে নতুন ধরনের অস্থিরতা সৃষ্টির লক্ষে, এবং নিজেদের প্রতিরক্ষা ব্যাবস্থার মেকী স্বরুপ তা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না. চেক মনে করে তাদের দেশে বসানো হচ্ছে রকেট বিরোধী ছাতি যা তাদেরকে রক্ষা করবে পৌরকাল্পনিক উত্তর কোরিয়া এবং ইরানের রকেট আক্রমন থেকে. চেকের নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞরা মনে করে যে এটা শুধু কল্পনার কথাবার্তা যে ইউরোপ সম্পূর্নরূপে নিরাপদ থাকবে. চেকের পদার্থ বিজ্ঞানী ইয়ান দালেজাল বলেন সাবেক চেকোস্লাভিকিয় টেরিটরিতে পারমানবিক কেন্দ্র স্থাপনের সময় বলা হয়েছিল – ভয়েস ইয়ান দালেজালা –


0আমাদেরকে তখন বলা হয়েছিল এই ধরনের রাডার সম্পুর্ন ইউরোপিয় ইউনিয়নের প্রতিরক্ষা ব্যাবস্থার জন্য বসান হবে. উত্তর কোরিয়া ও ইরানের বালিষ্টিক রকেটের হাত থেকে রক্ষা পাবার জন্য. যদি আমরা উত্তর কোরিয়ার কথাই ধরি তাহলে বলা প্রয়োজন এটা শুধু এক কান থেকে অন্য কানে প্রবেশ করানো. এই ধরনের আলোচনা করে শুধু সময়ই নষ্ট করার মতো. অন্য কোন কারন নেই বলেব ইয়ান দালেজাল.


0আমেরিকান রাডার স্থাপনা নির্মানের পূর্বে চেকের পার্লামেন্টে এ বিষয়ের উপর আলোচনা হবে. আর সরকারের সংখ্যা গরিষ্ঠতা পার্লামেন্টে নেই. আর তাই সব ধরনের আলোচনা পার্লামেন্টের আগামি সেসন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে. আর এর মধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে,